About Us

Learn more our company!

আমাদের কথা

আমাদের দেশের চিকিৎসা সেবার রূপকল্প আঁকার আগে, আমাদের কিছু সমস্যা থেকে মুক্ত হওয়া দরকার – যা আমাদের স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে আষ্টে-পৃষ্ঠে বেঁধে রেখেছে, যেগুলি আমরা অনেকেই জানি । আমাদের দেশে কোন ধুমপান নেই, গুল-জর্দা-তামাক ইত্যাদীর কুফল নেই, পানিতে আর্সেনিক ও কোন প্রকার দুষণ নেই, খাবারে ভেজাল নেই, ঘরে-বাইরে মশার উৎপাত নেই, বায়ু ও দুষণ নেই – এগুলো খুব দুরের কল্পনাও নয়, ছোট ছোট অভ্যাস বা ব্যবস্থা আমাদের পরিবেশকে বদলে দিতে পারে, স্বাস্থ্য উপযোগী করতে পারে । আমাদের স্বপ্নের স্বদেশে দেখব ঘরে ঘরে সবাই হাত ধোয়ার সংস্কৃতি চালু করেছে, পরিমিত বিশুদ্ধ পানি পান করছে, খাবার ঢেকে রাখছে, নিয়মতান্ত্রিক খাবার খাচ্ছে, স্বাস্থ্যসম্মত পায়খানা ব্যবহার করছে ইত্যাদী । এসব স্বাস্থ্যকর জীবনের অভ্যাস গড়ে তোলার জন্য আমাদের স্বাস্থ্যকর্মীদের মাধ্যমে এক সামাজিক আন্দোলন চলবে ঘরে ঘরে। মোটকথা সু-স্বাস্থ্য গড়ে তোলাই হবে আমাদের স্বাস্থ্যসেবার প্রথম পদক্ষেপ । আমাদের দেশে কিছু সহজলভ্য চিকিৎসা পদ্ধতি চালু আছে । যেমন হোমিওপ্যাথিক, ইউনানি, আয়ুর্বেদিক ইত্যাদি । প্রাকৃতিক উপাদান নির্ভর হওয়ায় এগুলোর পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া কম এবং অনেকেই এগুলোর উপর আস্থা রাখে । এসব চিকিৎসায় অর্থ ব্যয়ও অনেক কম । তাই আমরা সকল প্রকার চিকিৎসা পদ্ধতির সমন্বয়ে চিকিৎসা সেবা প্রদান করে থাকি । চিকিৎসা ক্ষেত্রে বলা হয় প্রতিকারের চেয়ে প্রতিরোধই উত্তম । আমাদের মত দরিদ্র ও জনবহুল দেশে তা আরও সত্য । তাই আমাদের স্বাস্থ্য ব্যবস্থার মূলমন্ত্রই হবে প্রতিরোধ । স্বাস্থ্যসংশ্লিষ্ট সবাইকে সেভাবেই গড়ে তোলা হবে । তবে প্রতিরোধ সত্বেও কিছু কিছু রোগ থাকবেই আর তার চিকিৎসাও করাতে হবে । স্বাস্থ্যসেবা থাকবে মানুষের দোড়গোরায় । সাধারণতঃ নিত্যপ্রয়োজণীয় ও প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হবে গ্রামীণ স্বাস্থ্য কেন্দ্র থেকেই । সেই সঙ্গে থাকবে প্রতিরোধ মূলক ব্যবস্থা । তৃণমূল পর্যায়ে চিকিৎসা সেবা দেয়ার সমস্যা হলো আমাদের পর্যাপ্ত চিকিৎসকের অভাব । তাই আমরা চিকিৎসকের পাশাপাশি প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষ্য স্বাস্থ্যকর্মী তৈরী করে নেব । যারা কাজ করবেন গ্রাম / ওয়ার্ড পর্যায়ে । তারা সাধারণ মানুষের মাঝে পুষ্টি, পরিবার-পরিকল্পনা, মা ও শিশুর স্বাস্থ্য পরিচর্যা, জন্ডিস-ডায়রিয়া-ডায়াবেটিক-প্রেসার নির্ণয় ও নিয়ন্ত্রন সহ জ্বর-ঠান্ডা-কাশি ইত্যাদী সমস্যায় রোগীকে উপদেশ ও নির্দেশনা দিবেন । প্রতি সপ্তাহে বাড়ী বাড়ী গিয়ে মানুষের স্বাস্থ্য সমস্যা নিয়ে কথা বলবেন, প্রাথমিক চিকিৎসাগুলো দিতে পারবেন এবং ডাক্তারের ব্যাবস্থাপত্র অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ঔষধ দিবেন । জটিল ও কঠিন রোগীদের ওয়ার্ড / ইউনিয়ন পর্যায়ে এম.বি.বি.এস / প্যারাম্যাডিক / সমমান চিকিৎসক দ্বারা ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে চিকিৎসা সেবা দেয়া হবে । এক কথায় আমাদের মূল উদ্দেশ্য প্রতিটি পরিবারকে স্বাস্থ্য সেবার মধ্যে রেখে নিয়মতান্ত্রিক ভাবে পরিচালনা করা এবং প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা প্রদান করা ।

সবুজ ছাতা কর্তৃক প্রচারিত

স্বাস্থ্য কর্মীর সেবা নিন সুস্থ্য থাকুন প্রতিদিন ।
পথে নামলে পথই পথ দেখায় ।
লক্ষ্য নিয়ে কাজ করলে সফলতা আসবেই ।
করতে হয় বলে করা আর ভালবেসে কাজ করা এক নয় ।